জানুয়ারী 21, 2022
বেড়ায় নৌকার নির্বাচনী ক্যাম্পে বিস্ফোরণ, আহত ২

বেড়ায় নৌকার নির্বাচনী ক্যাম্পে বিস্ফোরণ, আহত ২

পাবনার বেড়া উপজেলার চাকলা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্পে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন দুজন। গতকাল শনিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে চাকলা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পাঁচুরিয়া বাজারের দাখিল মাদ্রাসাসংলগ্ন নির্বাচনী ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে।

আহত দুজন হলেন পাঁচুরিয়া গ্রামের আমোদ আলী (৩০) ও সীমান্ত হোসেন (২৫)। আহত দুজনকে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। তাঁরা দুজনই আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কালীবাজার এলাকা থেকে চারটি মোটরসাইকেলে আট থেকে নয়জন মুখোশধারী গতকাল রাত সাড়ে নয়টার দিকে পাঁচুরিয়া বাজারে আসে। এ সময় হঠাৎ করেই তারা আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইদ্রিস সরদারের ঘোড়া মার্কার পক্ষে স্লোগান দিয়ে পাঁচুরিয়া বাজারের পাশে দাখিল মাদ্রাসাসংলগ্ন নৌকার নির্বাচনী ক্যাম্প লক্ষ্য করে ককটেলসদৃশ চারটি বস্তু নিক্ষেপ করে। এগুলোর মধ্যে একটির বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের বিকট শব্দে নৌকার সমর্থকেরা পালিয়ে যান। পরে হামলাকারীরা দ্রুত মোটরসাইকেল চালিয়ে কৈটোলা ইউনিয়নের দিকে চলে যায়।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফারুক হোসেন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইদ্রিস সরদার আমার জনপ্রিয়তায় দিশেহারা হয়ে বিএনপি-জামায়াতের লোকজন ও সন্ত্রাসীদের নিয়ে আমার নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে আমি এ ঘটনার দ্রুত বিচার দাবি করছি।’ এ বিষয়ে ইদ্রিস সরদার বলেন, ‘আমাকে ফাঁসানোর জন্য বেশ কিছুদিন ধরেই আমার নামে মিথ্যা মামলা দেওয়ার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। প্রকৃতপক্ষে ওই এলাকায় আমার কোনো কর্মী পোস্টার লাগাতে ও প্রচার করতেই যায় না। ওরা নিজেরাই ঘটনা ঘটিয়ে আমার কর্মীদের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। এটা আসলে পুরোপুরি সাজানো নাটক।’

খবর পেয়ে বেড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অবিস্ফোরিত ককটেলসদৃশ তিনটি বস্তু উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার বলেন, উদ্ধার করা বস্তুগুলো আসলেই ককটেল কি না, তা পরীক্ষা না করে বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনায় আজ রোববার দুপুর পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ আসেনি।